যৌন নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল

ধর্ষণ

ছয় তরুণ মিলে যৌন নির্যাতন করছে এক কিশোরীকে। কেউ একজন সেই ঘটনার ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দিয়েছেন। এরপর তা ভাইরাল হয়ে যায়। ওই ভিডিও দেখে চার তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অন্য দুজনকে গ্রেপ্তার করতে চলছে অভিযান।

যৌন নিপীড়নের এ ঘটনার সময় আশপাশে অনেকেই ছিলেন, কিন্তু কেউ কিশোরীকে উদ্ধার করতে এগিয়ে আসেননি। ভারতের বিহার রাজ্যের জেহানাবাদ শহরে সম্প্রতি এই ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনা তদন্ত করতে বিশেষ দল গঠন করেছেন পুলিশের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা নায়ার হোসেন খান।

Loading...

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, ভিডিও ফুটেজে ওই কিশোরীকে নির্যাতনকারীদের বিরুদ্ধে অসহায়ভাবে লড়াই করতে দেখা যায়। নিপীড়নকারীরা টেনে হিঁচড়ে কিশোরীর জামাকাপড় খোলার সময় হাসছিল ও বিদ্রুপ করছিল। ভিডিওধারণকারীসহ কাউকে এই নির্যাতন বন্ধের চেষ্টা করতে দেখা যায়নি।

জেহানাবাদ পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত বেশির ভাগের বয়স ১৩ থেকে ১৯ বছরের মধ্যে। নিপীড়নকারীদের মধ্যে একজনকে মোটরসাইকেলে থাকতে দেখা যায়, যা গুরুত্বপূর্ণ ক্লু হিসেবে মনে করছে পুলিশ। যে মোবাইল ফোনে ভিডিওটি ধারণ করা হয়েছে, সেটি এরই মধ্যে জব্দ করেছে পুলিশ। এ দিকে নির্যাতনের শিকার ওই কিশোরী ও তার পরিবারকে মানসিক সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।

সম্প্রতি জম্মু ও কাশ্মীরে আট বছরের শিশু গণধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় ভারতজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। এরপর বেঙ্গালুরুতেও এ ধরনের একটি ঘটনা ঘটে। এসব ঘটনা পরিপ্রেক্ষিতে শিশু ধর্ষণের অপরাধে বিশেষ আদেশের মাধ্যমে ধর্ষকের মৃত্যুদণ্ডের বিধান করে কেন্দ্রীয় সরকার।

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Loading...